কুসকুস রান্নার পদ্ধতি

কুসকুস রান্নার রেসিপিতে আপনাকে স্বাগতম! এই পোস্ট এর মাধ্যমে কীভাবে আপনি কুসকুস রান্না করবেন এবং কীভাবে পরিবেশন করবেন তা শিখতে পারবেন। এটি বেশ সুস্বাদু এবং তৈরি করাও বেশ সহজ, এটি আপনার রান্না জীবনের একটি মজাদার রেসিপি হয়ে উঠবে!

কুসকুস ! আমি নিশ্চিত যে আপনি এটা হয়তো শুনে থাকবেন। কিন্তু আপনি হয়তো ভাবছেন, “এটা আসলে কি ?” যদিও এটি একটি শব্দ মনে হতে পারে। কুসকুস আসলে কোন শস্য নয়, কিন্তু একটি ক্ষুদ্র উত্তর আফ্রিকান পাস্তা! এটি আপনার রান্নাঘরে রান্না হলে এর স্বাদ পরিবারের সবার কাছে আপনার গুরুত্বটা বাড়িয়ে দিবে দ্বিগুন।  এটি 10 ​​মিনিটের কম সময়ে রান্না করা সম্ভব এবং আপনি এটিকে সালাদ দিয়ে পরিবেশন করতে পারেন। পরিবেশনের ক্ষেত্রে আপনি বাটি থেকে শুরু করে সাধারণ সাইজের ডিশগুলিও ব্যবহার করতে পারেন৷

কুসকুস রান্নার পদ্ধতিঃ

আপনি কিভাবে কুসকুস রান্না করবেন তা নির্ভর করবে আপনি এটি কোন জাতের কুসকুস কিনবেন তার উপর। মুদি দোকানে, আপনি সাধারণত দুই ধরনের কুসকুস পাবেন। তা হলোঃ

  • মুক্তা বা ইসরায়েলি কুসকুস: মুক্তা কুসকুস নামটি কিভাবে আসলো তা বোঝা খুবই সহজ, কারণ এটি দেখতে গোলাকার, মুক্তার মতো বলের আকারে দেখা যায়। আমি এটি সেভাবেই রান্না করি যেভাবে আমি অন্যান্য ধরণের পাস্তা তৈরি করি। প্রথমে, আমি একটি বড় পাত্রে লবণ ,পানি নিয়ে এটি ফুটিয়ে নেই। তারপরে, এতে  আমি কুসকুস যোগ করি, 7-8 মিনিটের জন্য সেদ্ধ হওয়া পর্যন্ত রান্না করি। এরপর আমি পানি ঝরিয়ে নিয়ে ,জলপাই তেল দিয়ে সামান্য ভেজে নেই। এতে করে কুসকুস একটির সাথে আরেকটি লেগে যায় না।
  • ঐতিহ্যবাহী কুসকুস (সাদা বা পুরো গম): আপনি ইতোমধ্যে নীচের ছবিতে দেখতে পাবেন, এই জাতটি খুবই ছোট! ফলস্বরূপ, এটি একটি প্যানের মধ্যে রান্না করতে হবে। এটি রান্নার ক্ষেত্রে  কুসকুস এবং জলের অনুপাত 1:1  পরিমান থাকবে এবং পানিকে ফোটাতে হবে। পানি ফুটে উঠলে, এর মধ্যে কুসকুস দানা যোগ করতে হবে। এরপর পাত্রটি ঢেকে দিতে হবে এবং আঁচ থেকে সরিয়ে দিতে হবে। এরপর আমি স্বাদ যোগ করতে এবং একটির সাথে যাতে আরেকটি লেগে না যায় তাই ফুটন্ত পানিতে কিছুটা জলপাই তেল এবং লবণ দিয়ে থাকি।

কুসকুস পরিবেশনঃ

প্রথমেই একটি কুসকুস সালাদ তৈরি করে নিতে হবে। রোস্ট করা টমেটো এবং ছোলা দিয়ে এটি তৈরি করলে এর স্বাদ অনেক বেড়ে যায়। অথবা যে কোনও শস্যের সালাদে শস্যের পরিবর্তে পুরো গমের কুসকুস দেওয়া যেতে পারে।

  • সাইড ডিশ হিসেবে পরিবেশন করা যেতে পারে। নীচে, আপনি একটি সাধারণ সাইড ডিশ হিসাবে এটি প্রস্তুত করার জন্য আমার প্রিয় রেসিপি এর উপায় গুলো খুঁজে পাবেন। আমি সাধারণত সাইড ডিশ হিসেবে পরিবেশনের ক্ষেত্রে, লেবুর রস, পাইন বাদাম এবং জলপাই তেল দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করে থাকি।
  • একটি মৌসুমি সবজির সাথে পরিবেশ করুন । ঐতিহ্যবাহী মরক্কোর কুসকুস প্রায়শই স্টুই মৌসুমী শাকসবজির সাথে পরিবেশন করা হয় এবং আমি নিজেও এটি বেশ পছন্দ করি।
  • কুসকুসকে একাই একটি খাবার হিসেবে পরিবেশন করা যায়! এই পোস্ট টি পড়ে রেসিপি তৈরি করুন। তারপরে, ফুলকপি, ব্রাসেলস স্প্রাউট বা বাটারনাট স্কোয়াশের মতো ভাজা শাকসবজি, এবং আপনার প্রিয় প্রোটিন দিয়ে একটি সহজ খাবার তৈরি করুন!

এর পর এটি পরবেশন করুন ও উপভোগ করুন!

আরো সবজি জাতীয় রান্নার মৌলিক বিষয়ঃ

আপনি যদি এই রেসিপিটি পছন্দ করে থাকেন  তবে নিম্নলিখিত শাকসবজি-ভিত্তিক রান্নার উপাদানগুলির মধ্যে একটি চেষ্টা করতে পারেনঃ

মসুর ডাল

  • হার্বড ফ্যারো
  • সিলান্ট্রো লাইম রাইস
  • কুইনোয়া
  • ক্রিস্পি রোস্টেড ছোলা
  • ফুলকপি চাল
  • জুচিনি নুডলস
  • ক্রিস্পি বেকড তোফু
  • মেরিনেটেড বেকড টেম্পেহ

Source link